বুধবার, ২৫শে নভেম্বর, ২০২০ খ্রিস্টাব্দ, ১০ই অগ্রহায়ণ, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ, ৯ই রবিউস সানি, ১৪৪২ হিজরি.
SKF Company

করোনা আক্রান্ত ট্রাম্প-মেলানিয়া

০৪-অক্টো-২০২০ | Dhaka Desk | 32 views
trump & melenia

ওয়াশিংটন ডেস্ক : নির্বাচনের বাকি মাত্র একমাস। তার আগেই হোয়াইট হাউস অলিন্দে করোনার থাবা। আক্রান্ত ডোনাল্ড ট্রাম্প। সংক্রামিত হয়েছেন ফার্স্ট লেডি মেলানিয়াও। শুক্রবার ট্যুইটে স্ত্রী ও নিজের কোভিড পজিটিভ হওয়ার কথা জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। লিখেছেন, ‘ফার্স্ট লেডি ও আমি কোভিড-১৯ পজিটিভ। কোয়ারেন্টাইনে যাচ্ছি। দু’জনে একসঙ্গে এই পরিস্থিতি কাটিয়ে উঠব।’ ট্রাম্পের চিকিৎসক শেন কনলি জানিয়েছেন, এই মুহূর্তে দু’জনেই ভালো আছেন। ৭৪ বছরের মার্কিন প্রেসিডেন্ট কোভিড হাই রিস্ক গ্রুপের মধ্যে পড়েন। যা কিছুটা হলেও চিন্তায় রেখেছে চিকিৎসকদের। ডোনাল্ড ও মেলানিয়া ট্রাম্পের দ্রুত আরোগ্য কামনা করে ট্যুইট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। পাশে থাকার বার্তা দিয়েছেন রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।
গত বৃহস্পতিবার কোভিড পজিটিভ হন প্রেসিডেন্টের উপদেষ্টা হোপ শার্লট হিকস। মিনেসোটায় ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রচারে ছিলেন হিকস। সেখান থেকে ফেরার পরেই করোনা উপসর্গ দেখা দেয়। পরীক্ষা করান হিকস। রিপোর্ট পজিটিভ আসে। এরপরেই আর অপেক্ষা করেননি ট্রাম্প। সস্ত্রীক করোনা পরীক্ষা করান। গতকাল সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি বলেন, ‘সহকর্মী হোপ হিকস কোভিড পজিটিভ। আমি ও মেলানিয়া কোভিড পরীক্ষা করিয়েছি। রিপোর্ট আসেনি। তবে দু’জনেই কোয়ারেন্টাইনে যাচ্ছি।’ এরপরেই ট্রাম্প দম্পতির রিপোর্ট পজিটিভ আসে। দেশবাসীর প্রার্থনা তাঁদের সঙ্গে রয়েছে বলে জানিয়েছেন ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স।
আরোগ্য-বার্তা দিয়েছেন ডেমোক্র্যাট প্রতিদ্বন্দ্বী জো বিডেন। তিনিও করোনা পরীক্ষা করিয়েছিলেন। এদিন সস্ত্রীক বিডেনের করোনা রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছে।
করোনা সংক্রমণ এবং মৃত্যু—শীর্ষস্থানে এখনও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্টের ভূমিকায় ক্ষুব্ধ বহু মানুষ। কিন্তু সমালোচনা গায়ে মাখার পাত্র ট্রাম্প নন। প্রবল সমালোচনার মধ্যেও তাঁকে খুব একটা মাস্ক পরতে দেখা যায়নি। এমনকী, গত মঙ্গলবার রাতে প্রথম প্রেসিডেন্সিয়াল বিতর্কেও মাস্ক ইস্যুতে বিডেনকে একহাত নেন তিনি। সংক্রামিত হওয়ার পরেও অবস্থান বদলাননি প্রেসিডেন্ট। বলেছেন, ‘হিকস প্রায় সব সময় মাস্ক পরতেন। তা সত্ত্বেও করোনা আক্রান্ত হয়েছেন।’ কোভিড-১৯’র পাশাপাশি জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যু, সুপ্রিম কোর্টে বিচারপতির মনোনয়ন ইস্যুতে বিরোধীদের নিশানায় পড়তে হয়েছে প্রেসিডেন্টকে। নির্বাচনী প্রচারকে অস্ত্র করে বিরোধীদের জবাব দিচ্ছেন ট্রাম্প। প্রতিটি গুরুত্বপূর্ণ প্রদেশের এপ্রান্ত-ওপ্রান্ত চষে বেড়াচ্ছেন তিনি। কোভিড পজিটিভ হওয়ায় আপাতত যাবতীয় কর্মসূচি বাতিল করতে হয়েছে ট্রাম্পকে। যা রিপাবলিকানদের জন্য বড়সড় ধাক্কা বলে মত বিশেষজ্ঞদের। মার্কিন প্রেসিডেন্টের করোনা সংক্রমণের খবর সামনে আসতেই বড়সড় ধস নামে আন্তর্জাতিক শেয়ার বাজারে। নিউ ইয়র্ক, টোকিও, সিডনি, লন্ডন সহ একাধিক বাজারে সূচক আচমকাই নেমে যায়। অপরিশোধিত তেলের দামেও পতন হয়। শেয়ার বাজার নিম্নমুখী হতেই একলাফে দাম বাড়ে সোনা-রুপোর। এদিন সোনার দাম বেড়েছে প্রায় ০.৪ শতাংশ। রুপোর দাম বাড়ে ০.৯ শতাংশ।
গত মঙ্গলবারের বিতর্কে করোনার জন্য ফের চীনকে দায়ী করেছিলেন ট্রাম্প। মৃত্যুসংখ্যা গোপনে অভিযুক্ত করেছিলেন ভারতকেও। যা নিয়ে কার্যত মুখে কুলুপ এঁটেছেন ‘বন্ধু’ মোদি-প্রশাসন। কিন্তু চুপ করে বসে নেই সোশ্যাল মিডিয়া। দেদার কটাক্ষ চলছে নেটিজেনদের মধ্যে। কেউ লিখেছেন, এই প্রথম ট্রাম্প পজিটিভ কিছু পোস্ট করলেন। কেউ আবার লিখেছেন, করোনাকে পাত্তা না দেওয়ার ফল ভুগছেন সস্ত্রীক মার্কিন প্রেসিডেন্ট। অনেকে আবার একধাপ এগিয়ে লিখেছেন, এবারও কি চীনকেই দায়ী করবেন ট্রাম্প?
জবাব নেই। উত্তরদাতাই যে কোয়ারেন্টাইনে।

Spread the love

সার্চ/অনুসন্ধান করুন

USA JOBS LINKS